সর্বশেষ সংবাদ:
জগন্নাথপুরে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে বাড়ি বাড়ি গেলেন শাহ্ নুরুল করিম সংসদীয় এলাকায় ১০ হাজার মাস্ক, গ্লাভস ও সাবান দিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী জগন্নাথপুরে করোনা পরিস্থিতির মধ্যে বিয়ের আয়োজন, ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা জগন্নাথপুরে অসহায়দের পাশে একতা শিক্ষানুরাগী যুব সংঘ ওসমানীনগরে দরিদ্র অসহায় মানুষের পাশে শিক্ষক পরিবার হাসপাতাল-ক্লিনিক-চেম্বার বন্ধ থাকলে ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা সংকটেও মতলববাজরা সক্রিয়, সতর্ক থাকার আহ্বান কাদেরের হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হতেই অসহায় মানুষের পাশে লুৎফুর মিয়া কোভিড-১৯ পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রীর ৩১ দফা নির্দেশনাগুলো কি ছিল ঘরে ঘরে খাবার পৌঁছে দিলেন ছাত্রলীগ নেতা বাড়িভাড়া ও ব্যাংক লোন-সংক্রান্ত প্রচারটি গুজব কালবৈশাখী ঝড়ে কিশোরীর মৃত্যু, ২ বোন আহত শ্রমজীবীদের মধ্যে ত্রাণ সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করলেন শংকর চন্দ্র দাস দায়িত্ব পালনের সময় মাস্ক পরার নির্দেশনা প্রধানমন্ত্রীর যুক্তরাজ্যে করোনায় ২৪ ঘন্টায় ৫৬৯ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ৪২৪৪ গোলাপগঞ্জে কুশিয়ারায় ভাসছে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ দিনমজুর ও শ্রমজীবীদের মাস্ক, সাবান ও হ্যান্ড স্যানেটাইজার দিলেন জহিরুল ইসলাম স্পেনে লাগামহীন হয়ে উঠছে প্রাণঘাতী করোনা, ২৪ ঘন্টায় ৯৫০ জনের প্রাণহানি বড়লেখায় সরকারি গুদামের ৩২ বস্তা চাল উদ্ধার, আটক ১ সুনামগঞ্জে ডাক্তারদের পিপিই দিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী

রাতের নিস্তব্ধতা ভেদ করে ধ্বনিত আজানে করোনা থেকে মুক্তির আকুতি

হাওরবাংলা ডেস্ক :: বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া ঘাতকব্যাধি করোনাভাইরাস থেকে মুক্তি পেতে বন্দরনগরী চট্টগ্রামসহ আশপাশের এলাকায় বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) রাত ১০টায় সম্মিলিতভাবে আজান দিতে শোনা গেছে। লকডাউনে সুনসান নগরের রাতের নিস্তব্ধতাকে ভেঙে খান খান করে দেয় আজানের সেই ধ্বনি। বিভিন্ন মসজিদে আর ঘরের জানালা বা বারান্দায় দাঁড়িয়ে স্থানীয় নগরবাসী এ আজান দেন। করুন সেই সুরে ছিল করোনা থেকে মুক্তির আকুতি।

জানাগেছে, কয়েকটি ইসলামী সংগঠনের আহ্বানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একত্রিত হয়ে এই সম্মিলিত আজানের আয়োজন করা হয়।

Advertisement
সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম মুন্না জানান, নগরের আগ্রাবাদ পাঠানটুলি এলাকায় বিভিন্ন মসজিদে রাত ১০টা ৫ মিনিটে একযোগে আজান দেয়া হয়।

বোয়ালখালী উপজেলার স্থানীয় সাংবাদিক একটি শীর্ষ অনলাইন ভিত্তিক সংবাদমাধ্যমকে জানান, তিনি উপজেলা বিভিন্ন মসজিদ থেকে সম্মিলিতভাবে আজান দিতে শুনেছেন।

রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ি জেলায় একইভাবে সম্মিলিতভাবে আজান দিতে শোনা গেছে।

Advertisement

ইসলামী চিন্তাবিদদের মতে, আজান ইসলামের এক মৌলিক ইবাদত নামাজের দিকে আহ্বানের মাধ্যম। আজানের মাধ্যমে আল্লাহর রহমত অবতীর্ণ হয়,বিপদ ও আজাব দূরীভূত হয়। হযরত আনাস ইবনে মালেক (রা.) থেকে বর্ণিত হাদীসে হুযুর (ﷺ) এরশাদ করেন- “اِذَا اُذِّنَ فِیْ قَرِیَةٍ اٰمَنَھَا اللہُ مِنْ عَذَابِهٖ فِیْ ذٰلِكَ الْیَوْمِ” যখন কোন গ্রামে আজান দেয়া হয়, তখন মহান আল্লাহ (ﷻ) সেদিন ওই গ্রামকে তার আজাব থেকে নিরাপদে রাখেন।

মহামারির সময় আজান দেয়া একটি মুস্তাহাব বিষয়। ফিকহে হানাফীর প্রসিদ্ধ গ্রন্থ রদ্দুল মুখতার বা ফতোয়ায়ে শামীতে আজানদানের ১০টি মুস্তাহাব সময়ের মধ্যে মহামারির সময় আজানের কথা উল্লেখ রয়েছে। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা মহামারি থেকে রক্ষায় অন্যান্য আমলের পাশাপাশি আজান দেয়া একটি শরীয়ত সমর্থিত মুস্তাহাব আমল। এটার জন্য কোনো সময় নির্ধারিত নেই।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি মাহমারিতে আক্রন্ত স্পেনে করোনাভাইরাস থেকে মুক্তির জন্য স্রষ্টার কৃপা কামনায় সম্মিলিতভাবে আজানের আয়োজন করা হয়।

Advertisement

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের অপশনে ক্লিক করুন

এ জাতীয় আরও সংবাদ 👇


Facebook Page


Scroll Up