সর্বশেষ সংবাদ:
জগন্নাথপুরে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে বাড়ি বাড়ি গেলেন শাহ্ নুরুল করিম সংসদীয় এলাকায় ১০ হাজার মাস্ক, গ্লাভস ও সাবান দিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী জগন্নাথপুরে করোনা পরিস্থিতির মধ্যে বিয়ের আয়োজন, ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা জগন্নাথপুরে অসহায়দের পাশে একতা শিক্ষানুরাগী যুব সংঘ ওসমানীনগরে দরিদ্র অসহায় মানুষের পাশে শিক্ষক পরিবার হাসপাতাল-ক্লিনিক-চেম্বার বন্ধ থাকলে ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা সংকটেও মতলববাজরা সক্রিয়, সতর্ক থাকার আহ্বান কাদেরের হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হতেই অসহায় মানুষের পাশে লুৎফুর মিয়া কোভিড-১৯ পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রীর ৩১ দফা নির্দেশনাগুলো কি ছিল ঘরে ঘরে খাবার পৌঁছে দিলেন ছাত্রলীগ নেতা বাড়িভাড়া ও ব্যাংক লোন-সংক্রান্ত প্রচারটি গুজব কালবৈশাখী ঝড়ে কিশোরীর মৃত্যু, ২ বোন আহত শ্রমজীবীদের মধ্যে ত্রাণ সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করলেন শংকর চন্দ্র দাস দায়িত্ব পালনের সময় মাস্ক পরার নির্দেশনা প্রধানমন্ত্রীর যুক্তরাজ্যে করোনায় ২৪ ঘন্টায় ৫৬৯ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ৪২৪৪ গোলাপগঞ্জে কুশিয়ারায় ভাসছে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ দিনমজুর ও শ্রমজীবীদের মাস্ক, সাবান ও হ্যান্ড স্যানেটাইজার দিলেন জহিরুল ইসলাম স্পেনে লাগামহীন হয়ে উঠছে প্রাণঘাতী করোনা, ২৪ ঘন্টায় ৯৫০ জনের প্রাণহানি বড়লেখায় সরকারি গুদামের ৩২ বস্তা চাল উদ্ধার, আটক ১ সুনামগঞ্জে ডাক্তারদের পিপিই দিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী

জাউয়াবাজারে জনসচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে সর্বোচ্চ শক্তি প্রয়োগ করতে প্রস্তুত: ইনচার্জ সাজ্জাদুর

নিজস্ব প্রতিবেদক:: প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কঠোর অবস্থানে যাওয়ার কথা বলেছেন ছাতক থানাধীন জাউয়াবাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ সাজ্জাদুর রহমান। একইসঙ্গে তিনি ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে না যাওয়ার কোনো বিকল্প নেই বলেও জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার হাওরবাংলা২৪.কম   কে তিনি বলেন, সুনামগঞ্জ পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান (বিপিএম) স্যারের  নির্দেশনায় ‘আমরা সার্বক্ষণিক টহল দিচ্ছি। মানুষকে বুঝানোর চেষ্টা করছি, সচেতন করছি। এরপরও যারা আইন অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে তো অবশ্যই আইন প্রয়োগের সুযোগ আছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে জনসমাগম এড়িয়ে চলতে এবং জনসচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে  আমরা সর্বোচ্চ শক্তি প্রয়োগ করতে প্রস্তুত। এবং সেটি করব।’

Advertisement

তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কঠোর থেকে কঠোরতর হতে হবে। এ ব্যাপারে কোনো উদারতা ও দয়া-মায়া দেখানো যাবে না। করোনা ভাইরাস নিয়ে আমরা সবাই উদ্বিগ্ন। এই প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে না যাওয়ার কোনো বিকল্প নেই।

এদিকে দেখা যায়, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে নিয়মিত মাইকিং ও সাধারণ মানুষকে সচেতন করে যাচ্ছে পুলিশ। তবুও অনেকেই অযথা বাইরে ঘোরাঘুরি ও আড্ডা অব্যাহত রেখেছেন। তবে এবার অপ্রয়োজনে ঘর থেকে বের হওয়া ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে রয়েছে পুলিশ।

Advertisement

বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) সকাল থেকে বাজারসহ কয়েকটি স্থানে নির্দেশনা না মানায় লাঠিচার্জ করে মানুষকে ঘরে যেতে বাধ্য করতে দেখা যায়। এ সময় মুখে মাস্ক না থাকায় অনেককে সচেতন করতেও দেখা গেছে।

এছাড়া বাজারসহ পুরো এলাকায় টহল জোরদার ও মাইকিং করে ঘরে থাকতে অনুরোধ করে যাচ্ছেন পুলিশ সদস্যরা। অপ্রয়োজনীয় দোকানপাট খোলা দেখলে তা বন্ধ করে দিচ্ছেন তারা।

Advertisement

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের অপশনে ক্লিক করুন

এ জাতীয় আরও সংবাদ 👇


Facebook Page


Scroll Up