সর্বশেষ সংবাদ:
গাজীপুর ছাত্রলীগ নেতা কাজী শাকিরের নেতৃত্বে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করোনায় করো না প্রতারণা রোববার থেকে ব্যাংকিং লেনদেন চলবে ২ ঘন্টা এবার আরেক এসিল্যান্ডের অ্যাকশন ভিডিও ভাইরাল জগন্নাথপুরে করোনায় গৃহবন্দি অসহায়দের পাশে মাগুরা ক্রিকেট ক্লাব করোনা: অবশেষে পুলিশের হস্তক্ষেপে আকিজ গ্রুপের হাসপাতাল নির্মাণের বাধা কাটল জগন্নাথপুরে ঘরবন্দি অসহায় পরিবারগুলো পাবে সরকারি বরাদ্দের খাদ্য সামগ্রী কোভিড-১৯: আশার কথা শোনালো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সিলেটবাসীর প্রতি এসপি ফরিদ উদ্দিনের বিশেষ বার্তা সিলেটে নিজ বাসার সামনে ছুরিকাঘাতে যুবক খুন করোনা আতঙ্কের মধ্যেও গার্মেন্টস খোলা রাখায় আন্দোলনে শ্রমিকরা জগন্নাথপুরে অসহায় ছিন্নমুল মানুষদের মাস্ক পড়িয়ে দিলেন ছাত্রলীগ নেতা সিলেটে চাল-ডাল নিয়ে দরিদ্রদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন সরকারি কর্মকর্তারা বিশ্বজুড়ে করোনা আক্রান্ত ৬ লাখ ছাড়িয়ে, মৃত ২৭ হাজারেরও বেশি আর কত! আমিও মানুষ, অনেক সহ্য করেছি, আর না : পুলিশের স্ত্রীর স্ট্যাটাস যশোর কান্ড: আমলাতন্ত্রের কাছে রাষ্ট্রযন্ত্র অসহায় নাকি ক্ষমতার অপব্যবহার? সমালোচনার ঝড় করোনা: লাশের পাহাড় ইতালি, একদিনে ৯১৯ সিলেটের মেয়ে সেই ডেইজি আপা আছেন মানুষের পাশে করোনা বিস্তাররোধে প্রবাসীরা বিশাল ভূমিকা পালন করতে পারেন : পরিকল্পনামন্ত্রী করোনায় মৃতের সখ্যা ২৫ হাজার ছাড়াল

সুনামগঞ্জসহ আরো চার জেলার প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত

হাওরবাংলা ডেস্ক :: সোমবার আরও চারটি জেলার প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের কার্যক্রম ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেছেন মহামান্য হাইকোর্ট।

নিয়োগ বঞ্চিত প্রাইমারি শিক্ষকদের করা রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে সোমবার বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি মাহামুদুল হাসান তালুকদারের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ প্রদান করেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন এ্যাড.কামাল হোসেন।

Advertisement

স্থগিত হওয়া জেলা গুলো হলো গোপালগঞ্জ গাজীপুর,সুনামগঞ্জ ও শরীয়তপুর জেলা। রবিবার(২৬ জানুয়ারি) ২১ টি জেলার নিয়োগ কার্যক্রম ৬ মাসের জন্য স্থগিতাদেশ দিয়েছিলেন মহামান্য হাইকোর্ট।

স্থগিতাদেশ হওয়া জেলাগুলোর মধ্য গোপালগঞ্জ ও গাজীপুর জেলাও অন্তর্ভুক্ত ছিলো। আজ নতুন করে আরও দুটি সুনামগঞ্জ ও শরীয়তপুর জেলায় নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে।

Advertisement

এর আগে গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর দেশের কয়েকটি জেলার নিয়োগ প্রার্থীদের করা এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ নিয়োগের বৈধতা নিয়ে রুল জারি করেন। রুলে প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৩ লঙ্ঘন করে গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর ঘোষিত ফল কেন আইন বর্হিভূত ঘোষণা করা হবে না এবং একইসঙ্গে ঘোষিত ফল বাতিল করে প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৩ অনুসরণ করে নতুন ফল কেন ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চাওয়া হয়েছে। এ রুলের ফলে অনেক জেলার নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত করে প্রাইমারি শিক্ষা অধিদপ্তর।

আইনজীবী কামাল হোসেনের সেল ফোনে ০১৭১৬-২১০০৩৬ স্থগিত হওয়া বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৩ এর ৭ ধারায় বলা হয়েছে, এই বিধিমালার অধীন সরাসরি নিয়োগযোগ্য পদগুলোর ৬০ শতাংশ নারী প্রার্থীদের,২০ শতাংশ পৌষ্য প্রার্থীদের এবং বাকি ২০ শতাংশ পুরুষ প্রার্থীদের দিয়ে পূরণ করা হবে। কিন্তু ২৪ ডিসেম্বর ঘোষিত ফলে সেটা অনুসরণ করা হয়নি। সে প্রেক্ষিতে মহামান্য হাইকোর্ট ২৬ জানুয়ারি ২১টি জেলায় নিয়োগ কার্যক্রম ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেছেন। আজ আরও চারটি জেলায় নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত করেন মহামান্য হাইকোর্ট।

Advertisement

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের অপশনে ক্লিক করুন

এ জাতীয় আরও সংবাদ 👇


Facebook Page


Scroll Up